24 C
Dhaka
হোম বিনোদনঢালিউড'সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি' অভিনেতা ফারুকীর প্রথম সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে আজ

‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি’ অভিনেতা ফারুকীর প্রথম সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে আজ

চারকিতে মুক্তি পাচ্ছে ফারুকী তিশা জুটির প্রথম সিনেমা

এই প্রথম সিনেমায় জুটি বেঁধে হাজির হতে যাচ্ছেন জনপ্রিয় নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী এবং জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী নুসরাত ইমরোজ তিশা। তাদের সিনেমার নাম ‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি ‘ সিনেমাটি লাভ স্টেরির। ১২ জন নির্মাতা ১২ টি লাভ স্টোরি নিয়ে ‘মিনিস্ট্রি অব লাভ ‘- প্রজেক্টে ১২ টি অরিজিনাল ফিল্ম বানাচ্ছেন। সেই সিনেমার মধ্যে একটি হলো এই সিনেমাটি। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন ফারুকী নিজেই এবং একই সাথে প্রথমবারের মতন অভিনয়ও করেছেন। আজ চরকিতে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ‘মিনিস্ট্রি অব লাভ’ এর প্রথম এই সিনেমাটি।
সিনেমা সম্পর্কে তিশা বলেন, ‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি ‘ ইলহাম হওয়ার পর তার প্রথম কাজ।রাইটার হিসেবে তার প্রথম লেখা।তার কন্যা ইলহামের প্রথম মিউজিক ভিডিও ছিলো এটি, পরিচালক হিসেবে ফারুকীর প্রথম অভিনয়, এই সিনেমায় অনেক কিছুই তাদের প্রথম বারের মতন ঘটেছে। আর সব মানুষের জন্যেই কেনো প্রথম বিষয় জীবনে অনেক স্পেশাল।তাই সিনেমাটিও তার জন্য অনেক স্পেশাল।
তিশা আরও জানান, এই সিনেমা নিয়া যদি তার আরও কিছু বলতে হয় তাহলে সে ছোট্ট করে বলবে, এই সিনেমাটা হচ্ছে মা বাবার অনুভূতির উপহার সকল সন্তানের প্রতি।

পরিচালক হিসেবে প্রথম অভিনয় প্রসঙ্গে ফারুকী বলেন, অনেকদিন তিনি কাজ করেছেন, কখনো ভাবেননি অভিনয় করবেন,সেটাও তিনি করে ফেললেন। ফলে তার মাঝে সংকোচ ভাব আছে এবং একই সাথে উত্তেজনাও কাজ করছে তার মাঝে। নিজেদের জীবন থেকে গল্প বের করেছেন তাই দূর্বলতাও আছে। শিল্পীর কাজই হলো হৃদয় খুঁড়ে বেদনা বের করে আনা। তিনি আরও জানান, তার নিজের সময়েটার সাক্ষী হওয়ার ছাড়া আর কিছু করার নেই। তারা সেখানে সেটাই করার চেষ্টা করেছেন। তারা মা-বাবা হিসেবে আলাদা কেউ না। সব পরিবারের বাবা-মামার গল্পই এক। সব মা-বাবার গল্পেই আছে ত্যাগ,আনন্দ, বিব্রতকর আরও বিভিন্ন অনুভূতি আর তাদের এই ছবিটি যদি সবার মনে সেই অনুভূতিগুলোর কথাই সবাইকে স্মরণ করিয়ে দেয় তাহলে তারা খুশি হবেন।
এই সিনেমায় অভিনয় শিল্পী হিসেবে আরও কাজ করেছেন ইরেশ যাকের, শরাফ আহমেদ জীবন, ডলি জগুর সহ আরও অনেকে।
নির্মাতা স্বামী এবং এক অভিনেত্রীর পক্ষ থেকে তাদের সদ্যেজাত কন্যাকে উদ্দেশ্য করে লেখা একটি ভালোবাসার চিঠি হচ্ছে এই ‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি ‘। গল্পপর আড়ালে লুকিয়ে আছে ব্যক্তি সমাজ ও রাষ্ট্রের বিভিন্ন বিষয় নানা চেহারা। যদিও বাহির থেকে দেখলে কেবলমাত্র এটা একটি সন্তানের জন্ম নেওয়া এবং দিনলিপির গল্প মনে হবে। বিরাশী মিনিটের সিনেমাটিতে এভাবেই গল্প সাজিয়েছেন ফারুকী।

একইমত আর্টিকেল

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন

- Advertisment -
Digital Marketer Apple Mahmud Riyad

জনপ্রিয়

মন্তব্য